নোমান মাহমুদঃ মেয়াদোর্ত্তীর্ণ রি-এজেন্টের ব্যবহার, অনুমোদনহীন রক্ত পরিসঞ্চালনসহ বিভিন্ন অভিযোগে রাজধানীর মিরপুরে অবস্থিত বেসরকারী প্রতিষ্ঠান আলোক হেলথকেয়ার ও ডায়াগনষ্টিক সেন্টারকে সাড়ে ৭ লক্ষ টাকা জরিমানা করেছেন র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত। আজ মঙ্গলবার (৩ জুলাই) বিকালে র‌্যাব সদর দপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সারোয়ার আলম এই অভিযান পরিচালনা করেন । অভিযানে র‌্যাবের পাশাপাশি স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও ঔষধ প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

র‌্যাব-৪ এর পক্ষ থেকে জানানো হয়, মেয়াদোর্ত্তীর্ণ রি-এজেন্ট ব্যবহার করে বিভিন্ন প্রকারের প্যাথলজিকাল পরিক্ষা করা, অনুমোদনহীন রক্ত পরিসঞ্চালনসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটিকে সাড়ে ৭ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সেইসাথে প্রতিষ্ঠানটিকে সংশোধনের জন্য ৭ দিনের সময় বেধে দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালত।

এর আগে ২০১৬ সালের ২৪শে মে একই ধরনের অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটিকে ৪ লাখ টাকা জরিমানা করেছিলো র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত। এছাড়াও চলতি বছরের ১৫ই ফেব্রুয়ারী প্রতিষ্ঠানটির হাসপাতাল শাখা পরিদর্শন করে আলোক হাসপাতালের কার্যক্রম জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকি হিসাবে উল্লেখ করে গত ২৭ শে ফেব্রুয়ারী স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (হাসপাতাল ও ক্লিনিক) ডাঃ কাজী জাহাঙ্গীর হোসেন স্বাক্ষরীত এক চিঠিতে প্রতিষ্ঠানটির সকল কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়। সেই সাথে প্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে কেন আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে না তা পরবর্তী ৭ কর্মদিবসের মধ্যে লিখিতভাবে জানাতে বলা হয়েছিলো।এবিষয়ে চলতি বছরের ২০শে মার্চ “আলোক হাসপাতাল বন্ধের নির্দেশ” শিরোনামে একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশিত হয় আওয়ার নিউজ ২৪ ডটকমের ওয়েবসাইটে।

অন্যদিকে অনুমোদনহীন ও পরিক্ষা ছাড়া রক্ত পরিসঞ্চালনের অভিযোগে ১১ লক্ষ টাকা জরিমানাসহ সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে মিরপুরের গ্যালাক্সী হাসপাতালের ডায়াগনষ্টিক সেন্টার ।