রাজধানীর বনানীর একটি হোটেলে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলার আসামি সাফাত আহমেদের বাবা আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের বিরুদ্ধে একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে।

ধর্ষণের ওই ঘটনাকে সাফাতের সাবেক স্ত্রী ফারিয়া মাহবুব পিয়াসার ‘সাজানো নাটক ও ষড়যন্ত্র’ বলে অভিযোগ করায় দিলদার আহমেদের বিরুদ্ধে গত রোববার ভাটারা থানায় ওই জিডি করেন পিয়াসা।

এশিয়ান টিভির সাবেক পরিচালক পিয়াসা মঙ্গলবার সমকালকে জানান, ঘটনার শিকার মেয়ে দুটি তার কাছে অভিযোগ নিয়ে গিয়েছিল। তিনি ঘটনা শুনে বলেছেন- ওরা অনেক টাকার মালিক। তাদের কিছু হবে না। এরপরও ওই ছাত্রীরা নিজের ইচ্ছেতে মামলা করেছে।

তিনি বলেন, অথচ প্রধান আসামির বাবা এজন্য তাকে দায়ী করে তার বিরুদ্ধে উল্টাপাল্টা বলছেন। এজন্য আমি বাধ্য হয়ে নিজের নিরাপত্তার জন্য থানায় জিডি করেছি।

গত ২৮ মার্চ রাতে রাজধানীর বনানীর ‘দি রেইনট্রি’ হোটেলে পূর্ব পরিচিত সাফাত আহমেদের জন্মদিনের অনুষ্ঠানে গিয়ে রাতভর ধর্ষণের শিকার হন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রী।

ওই ঘটনায় গত শনিবার আপন জুয়েলার্সের অন্যতম কর্ণধার দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাত আহমেদ ও ই-মেকার্স ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের পরিচালক নাঈম আশরাফকে প্রধান অভিযুক্ত করে মামলা করেন এক ছাত্রী।

মামলার অপর তিন আসামির একজন সাদমান সাকিফ ‘রেগনাম গ্রুপের’ পরিচালক। অপর দুই আসামির একজন সাফাতের গাড়ি চালক বিল্লাল এবং তার দেহরক্ষী আবুল কালাম আজাদ। ওই তিনজনের বিরুদ্ধে ধর্ষণে সহযোগিতা করার অভিযোগ আনা হয়েছে।