আগামী বাজেট হবে সর্বশ্রেষ্ঠ বাজেট : অর্থমন্ত্রী

আগামী মাসে সংসদে বাজেট দেওয়ার আগে বৃহস্পতিবার এক প্রাক-বাজেট আলোচনায় অংশ নেন অর্থমন্ত্রী। ভোটের আগে আগামী বছরের বাজেটে রাজস্ব আহরণের জন্য ‘চাপাচাপি’ করতে যে পারবেন না, তা বুঝে এবারই তা করতে চান অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

বাজেটের আকার বাড়ানোর সঙ্গে রাজস্ব আয়ও বাড়াতে চাইছেন মুহিত। এবার বাজেটের আকার ৪ লাখ ২০ হাজার কোটি টাকা হবে বলে ইতোমধ্যে আভাস দিয়েছেন তিনি। সেক্ষেত্রে অভ্যন্তরীণ উৎস থেকে রাজস্ব আরও বাড়াতে হবে।

২০১৮ সালের শেষে কিংবা ২০১৯ সালের শুরুতে একাদশ সংসদ নির্বাচন হবে। ওই নির্বাচনের আগে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য বর্তমান সরকার শেষ বাজেট দেবে।

সচিবালয়ে সম্পাদক ও বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রাক বাজেট আলোচনায় মুহিত জানিয়ে দিয়েছেন যে, ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য নিজের দ্বাদশ বাজেটই হবে তার দেওয়া শেষ বাজেট।
তিনি বলেন, “আগামী ২০১৮-১৯ অর্থছরের বাজেট হবে নির্বাচন পূর্ব বাজেট। সুতরাং সেখানে খুব যে একটা চাপাপাপি করতে পারব, সেটা মনে করি না। চাপাপাপি যা করার, এই বছরেই শেষ করতে হবে। ”

‘চাপাচাপি’র ব্যাখ্যায় অর্থমন্ত্রী বলেন, “চাপাচাপি হলো ইনক্রিজ ইন রেভিনিউ বাই ৩০ পারসেন্ট, হোয়ার দা ইউজুয়াল পারসেন্টেজ ফিফটিন টু সিক্সটিন- এ রকম। সে জায়গায় ৩০% করছি। দেন আরও বেশ কিছু কিছু প্রমিসেস অলরেডি মেইড। ”
অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে বাজেটের আকার বাড়াচ্ছেন মুহিত। উচ্চাভিলাষী সমালোচনা মানতেও তার আপত্তি নেই।

অর্থমন্ত্রী বলেন, “আমাদের স্বাভাবিক গতিধারায় এটা (আগামী) হবে সর্বশ্রেষ্ঠ বাজেট। আট বছরের গতিধারায় যেটা, তাতে এটা হবে সর্বশ্রেষ্ঠ বাজেট। ”

নিউজ টুডে সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ জানতে চান, “এই বাজেটে ভ্যাটের আকার কত হবে? গত বছরের ঘোষিত বাজেটের পুরোটা কি বাস্তবায়ন করা গেছে নাকি ঘাটতি আছে?”

অর্থমন্ত্রী বলেন, চলতি বাজেট ৩ লাখ ৪০ হাজার কোটি টাকার ছিল, বাস্তবায়িত হয়েছে ৩ লাখ ১৮ হাজার কোটি টাকা।

“ঘাটতি কম। এডিপিতে (বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি) কোনো পরিবর্তন করা হয়নি। বাংলাদেশের ইতিহাসে এটা প্রথম। ”

চলতি অর্থবছরের রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রার ৩৭ শতাংশ ভ্যাট, ৩৬ শতাংশ আয়কর এবং বাকিটা কাস্টম ডিউটির মাধ্যমে আদায় করা হচ্ছে বলে সভায় জানান এনবিআরের একজন কর্মকর্তা। আগামী ৫ বছরের মতো ভ্যাটদাতার সংখ্যা ৫ লাখে উন্নীত করা হবে বলেও জানান তিনি।