শ্বাসরুদ্ধ ম্যাচে বাংলাদেশের পরাজয়
ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে তিন রানে পরাজিত হয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজে জয়ের সুযোগ হারিয়েছে বাংলাদেশে। এতে করে তিন ম্যাচ সিরিজে সমতায় রয়েছে ক্যারিবীয়রা। আগামী ২৮ জুলাই সেন্ট কিটসে হবে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচ।
এ ম্যাচে বাংলাদেশ পরাজিত হয়েছে এটা সবার জানা। কিন্তু পরাজয়কে ছাপিয়ে বিতর্ক ওঠে এসেছে আইসিসির নিয়ম নিয়ে।অনেকেই বলছেন আইসিসির নিয়মের বেড়াজালে পড়ে ম্যাচে পরাজিত হয়েছে বাংলাদেশ।
ঘটনাটি ঘটেছে ৪৩ ওভারের সময়। দেবেন্দ্র বিশুর বলে রিভার্স সুইপ খেলেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল মুশফিকুর রহিম। বল কিপারের পাশ দিয়ে ছুটে স্পর্শ করে সীমানা। কিন্তু বল প্যাডে লেগেছিল ভেবে ক্যারিবীয়ানদের আবেদনে সাড়া দিয়ে আম্পায়ার মুশফিককে আউট দিয়ে দেন। মুশফিক আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে রিভিউতে যান। রিভিউ রিপ্লেতে স্পষ্ট দেখা যায় বল লেগেছিল মুশির ব্যাটের কানায়। তাই বেঁচে যান মুশফিক। মুশফিক বেঁচে গেলেও ওই চার রান হারায় বাংলাদেশ।
রিভিউর ক্ষেত্রে আইসিসির আইন বলছে, মাঠের আম্পায়ার আউট দেয়ার পর রিভিউয়ে সেই সিদ্ধান্ত উল্টে গেলেও ওই বলে কোনও রান হবে না। এক্ষেত্রে আইসিসির যুক্তি হল, আম্পায়ার আউট দেয়ার পরই সাধারণত বল ‘ডেড’ হয়ে যায় তাই ফিল্ডাররা বল ধরার দিকে আর নজর দেন না, কাজেই সেখানে রান দেয়া হবে না।
কিন্তু আইনটি করার পর থেকেই প্রবল সমালোচনা হয়ে আসছে। বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য হচ্ছে আম্পায়ারের ভুলের খেসারত কেনও ব্যাটসম্যান ও তার দল দেবে, সেই প্রশ্ন উঠেছে। রিভিউ আইনের অন্যতম গলদ হিসেবেও এটিকে চিহ্নিত করা হয়েছে।
এদিন বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজের ম্যাচ শেষেও টিভিতে দুই বিশেষজ্ঞ ইয়ান বিশপ ও জেফ ডুজনের আলোচনায় উঠে এল এই প্রসঙ্গ। আরও বড় মঞ্চে, বিশ্বকাপ ফাইনালের মতো ম্যাচে শেষ বলে যদি এই আইনে শিরোপার ফয়সালা হয়, তাহলে সেটি কতটা দুঃখজনক ও বিতর্কিত হবে, সেটি তুলে ধরলেন বিশপ। বিতর্কিত আইনটি নিয়ে আইসিসিকে আবারও ভেবে দেখার পরামর্শ দিলেন সাবেক দুই ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটার।